এই মুহুর্তে

শ্রমন আর্টিস্ট গ্রূপ আয়োজিত প্রদর্শনী

“শহর, যখন বৃষ্টিস্নাত, আকাশ মেঘে ঢাকা,,
নতুন পথের ইশারা ওই,,,,রঙিন ছবি আঁকা।
দূরত্বটা ক্ষণিক, জানি; মনের নতুন ধাঁধা,
রঙ-তুলিতে ঘুচিয়ে দিল,,,অলঙ্ঘ সব বাধা ।।”

গত শনিবার, শিল্পী অরূপ দার, হঠাৎ একটা ফোন পেলাম “হ্যালো জয়?…আজ একবার সময় হবে?..এই,সি,সি,আর এ আস্তে পারবি, একটা প্রদর্শনীতে???”

",,,,,শহর, যখন বৃষ্টিস্নাত, আকাশ মেঘে ঢাকা,,নতুন পথের ইশারা ওই,,,,রঙিন ছবি আঁকা।দূরত্বটা ক্ষণিক, জানি; মনের নতুন ধাঁধা,রঙ-তুলিতে ঘুচিয়ে দিল,,,অলঙ্ঘ সব বাধা ।।"—-নমস্কার, শুভ দ্বিপ্রহর ।গত শনিবার, শিল্পী অরূপ দার, হঠাৎ একটা ফোন পেলাম,,,"হ্যালো,,,,জয়?"""…আজ একবার সময় হবে?..এই,সি,সি,আর এ আস্তে পারবি, একটা প্রদর্শনীতে???"ব্যাস। সন্ধ্যে সাড়ে ছটায়, বালিগঞ্জ ফাঁড়ির ক্লাস সেরে, অটো করে, হাজরা;সেখান থেকে বাসে, হো-চি-মিন সরনী । শনিবারের সন্ধ্যা। অপেক্ষাকৃতভাবেই, অফিস-পাড়ার হুল্লোড় ও ব্যস্ততা হীন, এক অবসরের যাপন, আলো-অন্ধকারে। সোজা, প্রদর্শনী কক্ষে, পৌঁছলাম। এরূপ দা , ?ফোনে ব্যস্ত, কিন্তু দেখতে পেলাম না । এদিকে, ফোনের ব্যাটারি ,,লো! কি আর করা, ঝটপট, কিছু ছবি তুলতে লাগলাম। কোথাও, তারা-হুড়ো করে ,কয়েকবার হাত কপিল, ফোকাস নড়ে গেল।কিন্তু, এই প্রদর্শনীতে এসে, মনটা ভালো হয়ে গেল।বেশ কিছু নবীন-প্রবীণ শিল্পীদের যৌথ প্রয়াস ।প্রত্যেকটি কাজের মধ্যে আছে, শিল্পীর নিজস্বতা, মৌলিক ভাবনা, এবং দৃষ্টি নন্দন উপস্থাপনা ও প্রেক্ষিত ।এই প্রদর্শনীটি গত ০৯ই আগস্ট২০১৯ থেকে গত ১১ই অগাস্ট,২০১৯ পর্যন্ত অর্থাৎ রবিবার অব্দি ছিল।অনুষ্ঠানের সূচনায় উপস্থিত ছিলেন, বিশিষ্ট শিল্পী, শ্রী ওয়াসিম কাপুর , বিশিষ্ট লেখক এবং শিল্প-সমালোচক শ্রী মৃনাল ঘোষ, বাংলাদেশ ডেপুটি হয় কমিশনার, কলকাতা, শ্রী বি,এম,জামাল হোসেন, প্রখ্যাত ফটোগ্রাফার, শ্রী অতনু পাক, কলকাতা এবং ওড়িশা হয় কোর্টের প্রাক্তন বিচারক শ্রী প্রদীপ্ত রয়, এবং বাংলাদেশের প্রখ্যাত শিল্পী আবিদা হোসেন । এই অনুষ্ঠানটি আয়োজনে ছিল, শ্রমন আর্টিস্ট গ্রূপ ।সংস্থার প্রধান উপস্থাপক, বা আয়োজক শিল্পী শ্রী সুব্রত রয় মহাশয় । শ্রমন শিল্পগোষ্ঠীর , এই প্রয়াসের অন্যতম বিশেষতা হল, বাংলা ও বাঙালির দিকপালদের শ্রদ্ধার্ঘ্য নিবেদন ।এই অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে, শ্রদ্ধাঞ্জলি প্রদান করা হয়-প্রখ্যাত চলচ্চিত্র অভিনেতা স্বর্গীয় চিন্ময় রায়, বিশিষ্ট ও স্বনামধন্য মুর্তিকার স্বর্গীয় বিপিন গোস্বামী এবং চিত্রকলার অন্যতম দিকপাল স্বর্গীয় রবিন মন্ডল মহাশয়কে । মুহূর্তের পক্ষ থেকে , সকল অংশগ্রহণকারী শিল্পিদের প্রতি রইল আন্তরিক শুভেচ্ছা, ও অভিনন্দন। আগামী দিনে উদীয়মান এই শিল্পীদের সাফল্য ও উৎকর্ষতা সারা বিশ্বে প্রসংশিত হোক । জয়দেব দাস ।সম্পাদক,মুহূর্ত ।।

Posted by Muhurto on Tuesday, August 13, 2019

ব্যাস। সন্ধ্যে সাড়ে ছটায়, বালিগঞ্জ ফাঁড়ির ক্লাস সেরে, অটো করে, হাজরা;সেখান থেকে বাসে, হো-চি-মিন সরনী।

শনিবারের সন্ধ্যা। অপেক্ষাকৃতভাবেই, অফিস-পাড়ার হুল্লোড় ও ব্যস্ততা হীন, এক অবসরের যাপন, আলো-অন্ধকারে। সোজা, প্রদর্শনী কক্ষে, পৌঁছলাম। অরূপ দা?ফোনে ব্যস্ত, কিন্তু দেখতে পেলাম না।

এদিকে, ফোনের ব্যাটারি লো! কি আর করা, ঝটপট, কিছু ছবি তুলতে লাগলাম। কোথাও, তারা-হুড়ো করে ,কয়েকবার হাত কপিল, ফোকাস নড়ে গেল।

Exhibition at ICCR

কিন্তু, এই প্রদর্শনীতে এসে, মনটা ভালো হয়ে গেল।
বেশ কিছু নবীন-প্রবীণ শিল্পীদের যৌথ প্রয়াস ।
প্রত্যেকটি কাজের মধ্যে আছে, শিল্পীর নিজস্বতা, মৌলিক ভাবনা, এবং দৃষ্টি নন্দন উপস্থাপনা ও প্রেক্ষিত।
এই প্রদর্শনীটি গত ০৯ই আগস্ট২০১৯ থেকে গত ১১ই অগাস্ট,২০১৯ পর্যন্ত অর্থাৎ রবিবার অব্দি ছিল।

Exhibition by Shraman Artist Group

অনুষ্ঠানের সূচনায় উপস্থিত ছিলেন, বিশিষ্ট শিল্পী, শ্রী ওয়াসিম কাপুর, বিশিষ্ট লেখক এবং শিল্প-সমালোচক শ্রী মৃনাল ঘোষ, বাংলাদেশ ডেপুটি হয় কমিশনার, কলকাতা, শ্রী বি,এম,জামাল হোসেন, প্রখ্যাত ফটোগ্রাফার, শ্রী অতনু পাক, কলকাতা এবং ওড়িশা হয় কোর্টের প্রাক্তন বিচারক শ্রী প্রদীপ্ত রয়, এবং বাংলাদেশের প্রখ্যাত শিল্পী আবিদা হোসেন ।

এই অনুষ্ঠানটি আয়োজনে ছিল, শ্রমন আর্টিস্ট গ্রূপ।
সংস্থার প্রধান উপস্থাপক, বা আয়োজক শিল্পী শ্রী সুব্রত রয় মহাশয় ।

শ্রমন শিল্পগোষ্ঠীর চিত্রকলা প্রদর্শনীর কিছু স্মরণীয় মুহূর্ত

শ্রমন শিল্পগোষ্ঠীর, এই প্রয়াসের অন্যতম বিশেষতা হল, বাংলা ও বাঙালির দিকপালদের শ্রদ্ধার্ঘ্য নিবেদন।

এই অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে, শ্রদ্ধাঞ্জলি প্রদান করা হয়-
প্রখ্যাত চলচ্চিত্র অভিনেতা স্বর্গীয় চিন্ময় রায়, বিশিষ্ট ও স্বনামধন্য মুর্তিকার স্বর্গীয় বিপিন গোস্বামী এবং চিত্রকলার অন্যতম দিকপাল স্বর্গীয় রবিন মন্ডল মহাশয়কে ।

মুহূর্তের পক্ষ থেকে, সকল অংশগ্রহণকারী শিল্পিদের প্রতি রইল আন্তরিক শুভেচ্ছা, ও অভিনন্দন। আগামী দিনে উদীয়মান এই শিল্পীদের সাফল্য ও উৎকর্ষতা সারা বিশ্বে প্রসংশিত হোক ।

Comment here